কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব সম্পর্কে জানেন কি? - মায়া

কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব সম্পর্কে জানেন কি?

আর্টিক্যালটিতে যা থাকছে

  • কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব সমূহ কি?
  • কোভিড-১৯ এর কারণে গুরুত্বপূর্ণ অর্গানের ক্ষতি
  • রক্ত জমাট বাঁধা এবং রক্তনালীতে সমস্যা
  • মুড এবং ক্লান্তি জনিত সমস্যা
  • অনেক দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব এখনও অজানা

উপসর্গগুলি মাঝে মাঝে কয়েক মাস ধরে থাকতে পারে। ভাইরাস ফুসফুস, হার্ট এবং মস্তিষ্কের ক্ষতি করতে পারে, যা দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য সমস্যার ঝুঁকি বাড়ায়।

অনেকেই ইতিমধ্যেই কোভিড-১৯ থেকে সেরে উঠলেও দীর্ঘদিন যাবৎ নানাধরনের শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন এবং বুঝতে পারছেন না কি হচ্ছে তাদের সাথে।

আর্টিক্যালটি পড়ে কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব সমূহ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব সমূহ কি?

করোন ভাইরাস আক্রান্ত বেশিরভাগ মানুষ কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পুরোপুরি সেরে ওঠে। তবে কিছু মানুষ – এমনকি যাদের রোগের হালকা উপসর্গ ছিল – তাদের প্রাথমিক উপশমের পরেও লক্ষণগুলি দীর্ঘসময় থাকতে পারে।

বয়স্ক ব্যক্তিরা এবং অনেক গুরুতর চিকিত্সা অবস্থার লোকের কোভিড-১৯ এর দীর্ঘস্থায়ী লক্ষণগুলির সবচেয়ে বেশি সম্ভাবনা থাকে। সময়ের সাথে দীর্ঘায়িত হওয়া সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • ক্লান্তি
  • কাশি
  • শ্বাস- প্রশ্বাসে দুর্বলতা
  • মাথা ব্যথা
  • জয়েন্ট পেইন

যদিও কোভিড-১৯ কে প্রাথমিকভাবে ফুসফুসকে প্রভাবিত করে এমন একটি রোগ হিসাবে দেখা যায়, তথাপি এটি শরীরের অন্যান্য অর্গানকেও ক্ষতিগ্রস্থ করতে পারে। এই ক্ষতি দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য সমস্যার ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে

কোভিড-১৯ এর কারণে গুরুত্বপূর্ণ অর্গানের ক্ষতি

কোভিড-১৯ দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে এমন অঙ্গগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • হার্ট: কোভিড-১৯ থেকে সেরে উঠার কয়েক মাস পরেও টেস্ট করে দেখা গিয়েছে যে এটি হৃৎপিণ্ডের পেশীগুলোর ক্ষতি করেছে। এমনকি যাদের উপসর্গ গুলো খুব বেশি ছিল না তাদের ক্ষেত্রেও ক্ষতিগ্রস্থ পেশী দেখা গিয়েছে। এটি ভবিষ্যতে হৃদস্পন্দন বা হার্টের অন্যান্য জটিলতার ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে।
  • শ্বাসযন্ত্র: প্রায়শই কোভিড-১৯ এর সাথে যুক্ত নিউমোনিয়ার ধরণের কারণে ফুসফুসের ক্ষুদ্র বায়ু থলিগুলোর (আলভেলি) দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতি হতে পারে। ফলস্বরূপ ক্ষতিগ্রস্থ টিস্যু দীর্ঘমেয়াদী শ্বাসকষ্টের কারণ হতে পারে।
  • মস্তিষ্ক: এমনকি তরুণদের মধ্যেও কোভিড-১৯ স্ট্রোক, খিঁচুনি এবং গিলেন-ব্যারে সিনড্রোমের – (এমন একটি অবস্থা যা অস্থায়ী পক্ষাঘাতের কারণ হয়) কারণ হতে পারে। কোভিড-১৯ পার্কিনসন ডিজিজ এবং আলঝােইমার রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে।

রক্ত জমাট বাঁধা এবং রক্তনালীতে সমস্যা

কোভিড-১৯ এর প্রভাবে রক্তের কোষগুলি ক্ল্যাম্প বা সংকুচিত হওয়ার এবং রক্ত জমাট বাধার সম্ভাবনা আরও বেড়ে যায়। যদিও বৃহত রক্তের দলা গুলি হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের কারণ , তথাপি কোভিড-১৯ এর কারণে সৃষ্ট রক্ত জমাট বেঁধে ছোট ছোট রক্তের দলাগুলি হৃৎপিণ্ডের ক্ষুদ্র রক্তনালীগুলিতে (কৈশিক) ব্লকসৃষ্ট করে হার্টের ক্ষতির করতে পারে।

রক্তের জমাট বাঁধার ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে এমন অন্যান্য অঙ্গগুলির মধ্যে রয়েছে ফুসফুস, পা, লিভার এবং কিডনি। কোভিড-১৯ রক্তনালীগুলিকে দুর্বল করতে পারে যা লিভার এবং কিডনি সংক্রান্ত সম্ভাব্য দীর্ঘস্থায়ী সমস্যার ক্ষেত্রে অবদান রাখে।

মুড এবং ক্লান্তি জনিত সমস্যা

যাদের কোভিড-১৯ এর ফলে গুরুতর উপসর্গ ছিল তাদের প্রায়শই হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে চিকিত্সা নিতে হয়েছে, শ্বাস নিতে হয়েছে ভেন্টিলেটরের মতো যান্ত্রিক সহায়তায়।

এই অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে বেঁচে যাওয়া একজন ব্যক্তির মধ্যে পরবর্তীকালে ট্রমাটিক স্ট্রেস সিন্ড্রোম, হতাশা এবং উদ্বেগ বিকাশের সম্ভাবনা তৈরি হয়।

কোভিড-১৯ ভাইরাস থেকে দীর্ঘমেয়াদী ফলাফলের ভবিষ্যদ্বাণী করা কঠিন যেহেতু এটি নতুন, তাই বিজ্ঞানীরা এ সম্পর্কিত অন্যান্য ভাইরাসে যেমন সার্স (এসএআরএস) এর দীর্ঘমেয়াদী প্রভাবগুলির মধ্যে দীর্ঘকালীন তীব্র শ্বাসকষ্টের মত প্রভাবগুলো দেখেছেন।

সার্স থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে এমন অনেক লোকের দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তি বিকাশ করেছে, চরম ক্লান্তি অনুভব করলেও এ ক্লান্তি বিশ্রাম নিয়ে উন্নতি করে না। একই রকম প্রভাব কোভিড-১৯ থেকে সেরে উঠা ব্যক্তিদের ক্ষেত্রেও হতে পারে।

অনেক দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব এখনও অজানা

কোভিড-১৯ কীভাবে সময়ের সাথে সাথে মানুষকে প্রভাবিত করবে সে সম্পর্কে এখনও অনেক কিছুই অজানা। যাইহোক, গবেষকরা চিকিত্সকদের তাদের কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করে তাদের সেরে উঠার পর তাদের অঙ্গগুলি কীভাবে কাজ করছে তা পর্যবেক্ষণ করে দেখার পরামর্শ দিয়েছেন।

এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে বেশিরভাগ রোগী কোভিড-১৯ থেকে দ্রুত সেরে উঠে।

তবে কোভিড -১৯ এর সম্ভাব্য দীর্ঘস্থায়ী প্রভাবগুলি জানার পর সকলের ই এর বিস্তার রোধে স্বাস্থ্যবিধি গুলি সঠিক ভাবে মেনে চলা উচিৎ। যেমন- মাস্ক পরা, ভিড় এড়িয়ে চলা এবং হাত পরিষ্কার রাখার মতো সতর্কতা অবলম্বন করা খুব জরুরি।

রেফারেন্সসমূহ

  • Carfi A, et al. Persistent symptoms in patients after acute COVID-19. JAMA. 2020; doi:10.1001/jama.2020.12603.
  • Teneforde MW, et al. Symptom duration and risk factors for delayed return to usual health among outpatients with COVID-19 in a multistate health care systems network — United States, March-June 2020. MMWR Morbidity and Mortality Weekly Report. 2020; doi: 10.15585/mmwr.mm6930e1.
  • McIntosh K. Coronavirus disease 2019 (COVID-19): Clinical features. https://www.uptodate.com/contents/search. Accessed July 23, 2020.
  • Puntman VO, et al. Outcomes of cardiovascular magnetic resonance imaging in patients recently recovered from coronavirus disease 2019 (COVID-19). JAMA Cardiology. 2020; doi:10.1001/jamacardio.2020.3557.
  • Yancy CW, et al. Coronavirus disease 2019 (COVID-19) and the heart — Is heart failure the next chapter? JAMA Cardiology. 2020; doi:10.1001/jamacardio.2020.3575.
  • Mitrani RD, et al. COVID-19 cardiac injury: Implications for long-term surveillance and outcomes in survivors. Heart Rhythm. 2020; doi:10.1016/j.hrthm.2020.06.026.
  • Salehi S, et al. Long-term pulmonary consequences of coronavirus disease 2019 (COVID-19): What we know and what to expect. Thoracic Imaging. 2020; doi:10.1097/RTI.0000000000000534.
  • Fotuhi M, et al. Neurobiology of COVD-19. Journal of Alzheimer’s Disease. 2020; doi:10.3233/JAD-200581.
  • Pero A, et al. COVID-19: A perspective from clinical neurology and neuroscience. The Neuroscientist. 2020; doi:10.1177/1073858420946749.
  • Myalgic encephalomyelitis/chronic fatigue syndrome: Information for healthcare providers. Centers for Disease Control and Prevention. https://www.cdc.gov/me-cfs/healthcare-providers/index.html. Accessed Feb. 4, 2020.
  • Barker-Davies RM, et al. The Stanford Hall consensus statement for post-COVID-19 rehabilitation. British Journal of Sports Medicine. 2020; doi:10.1136/bjsports-2020-102596.


Leave a Reply

Categories