ত্বকের যত্ন নেবার কিছু সাধারণ নিয়মাবলী যা সবার জানা উচিৎ - মায়া

ত্বকের যত্ন নেবার কিছু সাধারণ নিয়মাবলী যা সবার জানা উচিৎ

নিজের ত্বকের ধরণ সম্পর্কে জানুন 

আপনার ধারণা হতে পারে আপনার শুকনো, তৈলাক্ত বা সংবেদনশীল ত্বক রয়েছে তবে আপনি কি সত্যিই আপনার ত্বকের ধরণ সম্পর্কে জানেন? আপনার ত্বকের ধরণ কি তার উপর নির্ভর করবে আপনি সঠিক প্রসাধনী টি কিনছেন কিনা। আসলে, যত দামী বা ভাল প্রসাধনী ই ব্যবহার করুন না কেন  ভুল পণ্য ব্যবহারে আপনার ত্বকের ধরণের জন্য ব্রণ, শুষ্কতা বা ত্বকের অন্যান্য সমস্যা আরও খারাপ আকার ধারণ করতে পারে। 

ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য একটি রুটিন তৈরী করুন 

আপনার ত্বকের ধরণ কী সেটি এক্ষেত্রে মুখ্য নয়, দৈনিক ত্বকের যত্নের রুটিন সব ধরনের ত্বকের সামগ্রিক স্বাস্থ্য বজায় রাখতে এবং ব্রণ, দাগ এবং ডার্ক সার্কেলের দাগের মতো সমস্যাগুলো উপশম করতে সহায়তা করে। একটি ত্বকের যত্নের জন্য আপনি প্রতিদিন সকালে ও রাতে নিচের চারটি প্রাথমিক পদক্ষেপ নিয়মিত করে নিজেই পার্থক্য অনুভব করুন – 

১। পরিষ্কার করা: এমন একটি ক্লিনজার বেছে নিন যা দিয়ে মুখ ধোয়ার পরে আপনার ত্বককে শক্ত এবং টাইট করে না ফেলে। আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয়ে থাকে এবং যদি মেকাপ না করেন তবে দিনে একবার অথবা উর্দ্ধে ২ বার ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধৌত করুন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন অনুভূতির জন্য বার বার ধোয়া এড়িয়ে চলুন কারণ এর ফলে আপনার ত্বকের প্রাকৃতিক তেল চলে যেতে পারে। 

২। সেরাম: ভিটামিন সি বা গ্রোথ ফ্যাক্টর সমৃদ্ধ বা পেপটাইড সহ একটি সিরাম সকালে সানস্ক্রিনের নিচে ব্যবহার করে ভাল ফল পেতে পারেন। রাতে, রেটিনল বা প্রেসক্রিপশন রেটিনয়েডগুলি সবচেয়ে ভাল কাজ করে। মেকআপ আর্টিস্টরা একটি কার্যকর ভিটামিন সি এবং ই সিরাম এবং রেটিনল ব্যবহার করতে বলেন রাতে ঘুমানোর পূর্বে।

৩। ময়েশ্চারাইজার: এমনকি তৈলাক্ত ত্বকের জন্যও ময়েশ্চারাইজার প্রয়োজন, তবে এক্ষেত্রে একটি  হালকা, জেল-ভিত্তিক এবং নন-কমেডোজেনিক বা আপনার ত্বকের ছিদ্রগুলিকে ব্লক করে না এমন পণ্য ব্যবহার করুন।  শুষ্ক ত্বকে আরও বেশি ক্রিম- বেইজড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে উপকার পেতে পারেন। বেশিরভাগ ব্র্যান্ডের পণ্যে তাদের প্যাকেজিংয়ে তাদের পণ্যগুলি কোন ধরনের জেল নাকি ক্রিম তা লেবেল করা থাকে। 

৪। সানস্ক্রিন: বাইরে বের হওয়ার ১৫ মিনিট আগে কমপক্ষে ৩০ এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন প্রয়োগ করুন, কারণ সানস্ক্রিনটি সক্রিয় হতে কিছুক্ষণ সময় লাগে। তুলনা মূলক গাঢ় ত্বকের শেডের জন্য  সূর্যের থেকে বেশি সুরক্ষা প্রয়োজন কারণ হাইপারপিগমেন্টেশন সংশোধন করা খুব কঠিন। এলটাএমডি-র সানস্ক্রিন ব্যবহার করে দেখুন, যা ব্রড-বর্ণালী ইউভিএ / ইউভিবি সুরক্ষা সরবরাহ করে এবং স্কিন ক্যান্সার ফাউন্ডেশন দ্বারা প্রস্তাবিত।

আপনার ত্বকের ধরণ এবং সংবেদনশীলতার সাথে মানানসই পণ্যগুলি চয়ন করুন এবং লেবেলগুলি পড়তে ভুলবেন না। কিছু পণ্য যেমন রেটিনল বা প্রেসক্রিপশন রেটিনয়েডগুলি কেবলমাত্র রাতে প্রয়োগ করা উচিত।

সব ধরনের ত্বকের জন্য মনে রাখবেনঃ 

  • হাইড্রেটেড থাকুন। 
  • কমপক্ষে সপ্তাহে একবার বালিশের কভার গুলি পরিবর্তন করুন।
  • ঘুমানোর আগে চুল বেধে বা জড়িয়ে রাখুন।
  • প্রতিদিন সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন এবং বাইরে যাবার ১৫ মিনিট আগে প্রয়োগ করুন।

আপনার ত্বক কীভাবে প্রতিক্রিয়া দেখায় তা দেখতে একটি প্রাথমিক এবং সাধারণ রুটিন দিয়ে শুরু করুন। একবার আপনি এতে অভ্যস্থ্য হয়ে গেলে আপনার ত্বকের স্বাস্থ্য বা সুন্দরতা বাড়ানোর জন্য একে একে এক্সফোলিয়ান্টস, মাস্কস এবং স্পট ট্রিটমেন্টের মতো অতিরিক্ত পণ্য যুক্ত করতে পারেন।

একটি বিষয় সবসময় মেনে চলবেন, নতুন পণ্যগুলির প্যাচ করতে ভুলবেন না, বিশেষত যদি আপনার সন্দেহ হয় যে আপনার সংবেদনশীল ত্বক রয়েছে। এটি আপনাকে সম্ভাব্য অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া সনাক্ত করতে সহায়তা করতে পারে।

একটি নতুন পণ্যের প্যাচ পরীক্ষার করবেন যেভাবে:

  • আপনার কব্জি বা আপনার অভ্যন্তরের বাহুর মতো কোনও জায়গায় আপনার ত্বকে অল্প পরিমাণে পণ্য প্রয়োগ করুন।
  • প্রতিক্রিয়া আছে কিনা তা দেখার জন্য ৪৮ ঘন্টা অপেক্ষা করুন। 
  • আপনার বিলম্বিত প্রতিক্রিয়া আছে কিনা তা দেখার জন্য আবেদনের ৯৬ ঘন্টা পরে অঞ্চলটি পরীক্ষা করুন। 

অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়ার মধ্যে জ্বালা করা , লালভাব, ছোট ফোঁড়া বা চুলকানি অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে। যদি আপনি এই লক্ষণগুলি লক্ষ্য করেন, তবে আপনি যে জায়গাটি পরীক্ষা করেছেন তা পানি এবং মৃদু ক্লিনজার দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।পণ্যটি আপনার ত্বকে মানিয়ে গেলে ব্যবহার করুন। না মানালে এমন আরও একটি পণ্যের প্যাচ টেস্ট করার চেষ্টা করুন যা আপনার ত্বকের ধরণের সাথে আরও ভাল মানায়। 

ত্বকের যে কোন সমস্যায় মায়ার বিউটি এক্সপার্টের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না যেন। 

Leave a Reply