করোনায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র, কুলার, ফ্যান চালানোর কিছু নির্দেশনাবলী - মায়া

করোনায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র, কুলার, ফ্যান চালানোর কিছু নির্দেশনাবলী

গ্রীষ্মের তাপদাহ বাংলাদেশ জুড়ে পরিলক্ষিত হচ্ছে। গরমে স্বস্তি পেতে স্বাভাবিক ভাবেই এখন সবাই এয়ার কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন। তবে, বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন রয়েছে যেগুলি দাবি করে যে এয়ার কন্ডিশনার ব্যবহারের ফলে করোনভাইরাসের সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে।তাহলে আমাদের করনীয় সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নের উত্তর চলুন জেনে নেই-

ঘরে কত তাপমাত্রায় এয়ার কন্ডিশনার চালানো উচিৎ?

বাড়ির এয়ার কন্ডিশনারগুলি আদর্শভাবে ২৪-৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চালানো উচিত এবং আর্দ্রতা ৪০-৭০ শতাংশের মধ্যে হওয়া উচিত। তবে, প্রাকৃতিক বাতাস প্রবেশের ব্যবস্থা থাকা উচিৎ। বায়ু চলাচল ও নিঃসরণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এক্সস্টাস্ট ফ্যান থাকলে তা ছেড়ে রাখা অথবা না থাকলে জানালা ঈষৎ ফাঁকা রাখা।  

এয়ার কুলার ব্যবহার করব কিভাবে? 

ঠাণ্ডার জন্য অনেকে বাষ্পীভবন কুলার (মরুভূমি কুলার) ব্যবহার করে থাকেন। স্বাস্থ্য কর হাওয়া পেতে এবং ধুলাবালি দূরে রাখতে কুলারের সাথে বায়ু ফিল্টার ব্যবহার করা উচিৎ। আপনার কুলারটির বিশুদ্ধ বায়ুচলাচল নিশ্চিত করার জন্য বাইরে থেকে বাতাস ঘরে প্রবেশ করতে হবে এবং আর্দ্রতা হ্রাস করার জন্য জানালা খোলা রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

ইলেকট্রিক ফ্যান ব্যবহারের ক্ষেত্রে করণীয় কি? 

বৈদ্যুতিক পাখা ব্যবহারের ক্ষেত্রেও, সঠিক বায়ুচলাচল এবং নিষ্কাশনের জন্য জানালাগুলি খোলা রাখতে হবে। এক্সস্টাস্ট ফ্যান থাকলে তা ছেড়ে রাখুন।

কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা এবং কিছু সমস্যা

বিশেষজ্ঞদের মতে, উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারগুলি যেগুলি বাড়িতে ব্যবহৃত হয় তা ঠিক আছে, তবে কেন্দ্রীয় কুলিং ব্যবহার করার ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা রয়েছে। এই কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা মল, কর্পোরেট এবং সরকারী অফিস, হাসপাতাল ইত্যাদিতে ব্যবহৃত হয় এবং তা যদি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি, কাশি বা শ্বাস- প্রশ্বাসের সংস্পর্শে আসে তবে একই বিল্ডিংয়ের অন্যান্য ব্যক্তিতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বাড়তে পারে। এজন্য, বাইরের সাথে বায়ু সঞ্চালনের ব্যবস্থা রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ। 

এরূপ আরও অনেক বিষয় নিয়ে ভুল তথ্যে বিভ্রান্ত না হয়ে মায়াতে প্রশ্ন করে সঠিক তথ্য জেনে নিন। নিয়মিত আমাদের ব্লগ পড়ে নিজেকে আপডেটেড রাখুন।

তথ্যসুত্রঃ টাইমস অফ ইন্ডিয়া

Leave a Reply